1. admin@andolonerbazar.com : : admin admin
  2. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :
শিরোনাম :

কুষ্টিয়ায় ইউপি সদস্য কাজল হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ ২জন গ্রেপ্তার

  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল, ২০২৩

 

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে দৌলতপুর উপজেলার দৌলতখালি গ্রামের ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মোঃ কাজল হোসেন হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ ২জন গ্রেপ্তার হয়েছে। গত সোমবার (৩এপ্রিল) রাত সাড়ে ৭ টায় র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখার সহযোগিতায় ঢাকা শহরের সায়েদাবাদ ও কল্যাণপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার দৌলতখালি সরদারপাড়া গ্রামের মৃত লোকমান হোসেন সরদার ওরফে নুকা সরদারের দুই ছেলে ওই হত্যা মামলার ১নং আসামী মোঃ আব্দুল মাবুদ (৩৫) এবং ২নং আসামী মোঃ মতলেব (৪২)। গতকাল মঙ্গলবার (৪এপ্রিল) সকাল ১১টার সময় র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্প কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার স্কোয়াড্রন লীডার মোঃ তৌহিদুল মবিন খান সাংবাদিকদের সাথে এক প্রেস ব্রিফিং-এ এই তথ্য জানান। প্রেস ব্রিফিং-এ তিনি বলেন, চলতি বছরের গত ১৫মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার সময় দৌলতপুর উপজেলার দৌলতখালি গ্রামে ইউপি সদস্য মোঃ কাজল হোসেন (৪৫) নামের এক ইউপি সদস্যকে প্রতিপক্ষের লোকজন পরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে গুরুতর আঘাত করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৬মার্চ ভোর ৫ টায় তার মৃত্যু হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা জানায়, এক মাস আগে বিয়ে বাড়িতে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে কাজলের ভাতিজার সঙ্গে প্রতিবেশী মাবুদ হোসেনের ছেলে ও তার চাচাতো ভাই-এর সাথে কথা-কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার কারনে গত ১৫মার্চ আনুমানিক বিকাল ৪টার দিকে মাবুদ হোসেনের ছেলে ও তার চাচাতো ভাই কলেজ থেকে ফেরার পথে নিহত কাজলসহ আরোও লোকজন নিয়ে তাদেরকে মারার উদ্দেশ্যে রড দিয়ে আঘাত করে ও হাতাহাতি, মারামারি সৃষ্টি হয়। এ ঘটনার কারনে ঐদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার সময় বিষয়টি নিয়ে নিহত কাজল ও তার ভাতিজাকে সাথে নিয়ে আসামি মাবুদের বাড়ির সামনে বিভিন্ন ধরনের গালিগালাজ ও মারধরের হুমকি দিতে আসে। যার ফলে কাজল ও মাবুদের সাথে কথা-কাটাকাটি শুরু হয় । এক পর্যায়ে তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে পিঠে ও ঘাড়ে গুরুতর জখম করা হয়। এদিকে  নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, কাজল ব্যাপারটি মিমাংশা করতে গিয়েছিল। এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহত কাজল হোসেনের ভাতিজা মোঃ শামীম হোসেন বাদী হয়ে গত ১৫মার্চ দৌলতপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নাম্বার-৩২। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রকাশ্যে সন্ধ্যা বেলায় সংঘটিত হত্যাকান্ডটি বিভিন্ন জাতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়।এ কারনে র‌্যাব আসামীদের গ্রেপ্তারে গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্প, র‌্যাব-১২’র আভিযানিক দল ঢাকা শহরে আত্মগোপনে থাকা পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে একাধিক অভিযান পরিচালনা করে। এক পর্যায়ে গত সোমবার(৩এপ্রিল) রাত সাড়ে ৭ টায় র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখার সহযোগিতায় ঢাকা শহরের সায়েদাবাদ ও কল্যাণপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে উক্ত হত্যা মামলার আসামী মোঃ আব্দুল মাবুদ এবং মোঃ মতলেবকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মোঃ কাজল হোসেন হত্যাকান্ডে তাদের সক্রিয় অংশ গ্রহনের কথা অকপটে স্বীকার করেছে। অপরদিকে স্থানীয় জনগণ অনেকেই গ্রেপ্তারকৃত আসামীদেরকে সরাসরি হত্যাকান্ডে অংশ গ্রহন করতে দেখেছে বলে তারা জানিয়েছে। পরে গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Site Customized By NewsTech.Com