1. admin@andolonerbazar.com : : admin admin
  2. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের পথে এগিয়ে গেল ইন্টার

  • সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ১২ এপ্রিল, ২০২৩

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ লিসবনে বেনফিকাকে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ২-০ গোলে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে পথে এক পা রেখে ফেলেছে ইন্টার মিলান। দ্বিতীয়ার্ধে নিকোলো বারেলা ও রোমেলু লুকাকুর গোলে ইন্টারের জয় নিশ্চিত হয়। তিনবারের চ্যাম্পিয়ন ইন্টার এস্তাদিও ডা লুজে দাপটের সাথে পূর্ণ তিন পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে। এবারের আসরে বেনফিকার এটাই প্রথম পরাজয়। প্রথমার্ধে কোন দলই গোল করতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত ৫১ মিনিটে আলেহান্দ্রো বাস্তোনির ক্রস থেকে বারেলা ইন্টারকে এগিয়ে দেন। বদলী খেলোয়াড় লুকাকু পেনাল্টি থেকে   ৮২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন। ১৯৯০ সালের পর এই প্রথমবারের মত সেমিফাইনালের লক্ষ্যে মাঠে নেমেছে বেনফিকা। কিন্তু ইন্টারের সামনে তারা নিজেদের মাঠে পাত্তাই পায়নি। সাম্প্রতিক সময়ের বাজে ফর্ম সত্বেও আত্মবিশ্বাস না হারিয়ে পেশাদারীত্ব প্রমান করেই জয় ছিনিয়ে নিয়েছে ইন্টার। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় আগের পাঁচ ম্যাচে মাত্র দুই গোল করা ইন্টার কাল লিসবনেও একই ধারা বজায় রেখেছিল। ব্রিটিশ সম্প্রচার প্রতিষ্ঠান বিটি স্পোর্টকে ইন্টার মিডফিল্ডার হেনরিক মাখিটারিয়ান বলেছেন, ‘এবারের মৌসুমে এটি আমাদের অন্যতম সেরা ম্যাচ। পুরো মাঠেই আমরা আধিপত্য দেখিয়েছি। একে অন্যকে সহযোগিতা করেছি এবং তার পুরস্কারও পেয়েছি। আমরা সত্যিই দারুনভাবে ম্যাচটি শেষ করেছি। কিন্তু এখনো সব কিছু শেষ হয়ে যায়নি। আগামী সপ্তাহে আবারো আমরা মুখোমুখি হচ্ছি। আমরা জানি ম্যাচটা মোটেই সহজ হবে না।’ কোন দলই প্রথমার্ধে তেমন ভাল কোন সুযোগ তৈরী করতে পারেনি। রাফা সিলভার শট রুখে দিয়ে বেনফিকাকে এগিয়ে যেতে দেননি ইন্টার গোলরক্ষক আন্দ্রে ওনানা। ৩০ গজ দূর থেকে ইন্টার ডিফেন্ডার ফ্রান্সেসকো আকারবির জোড়ালো শট অল্পের জন্য ক্রসবারের উপর দিয়ে বাইরে চলে যায়। ম্যাচের আধা ঘন্টা পর ইন্টার সবচেয়ে ভাল সুযোগটি হাতছাড়া করে। লটারো মার্টিনেজের পাস ব্লক হয়ে গেলে অনেকটা ফাকায় দাঁড়ানো অভিজ্ঞ এডেন জেকোর কিছুই করার ছিলনা। গনসালো রামোস, এ্যালেক্স গ্রিমালডো বেনফিকাকে পরপর দুটি প্রচেষ্টায় হতাশ করেছেন। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ডেডলক ভাঙ্গে ইন্টার। ৫১ মিনিটে বাস্তোনির ক্রস থেকে বারেলের হেডে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। এবারের মৌসুমে নয়টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ম্যাচের ছয়টিতে কোন গোল হজম করেনি ইন্টারের রক্ষনভাগ। বেনফিকার কোচ রজার শিমিডিট ম্যাচে ফিরে আসার তাগিদে মধ্যমাঠে ফ্লোরেন্তিনোর স্থানে ডেভিড নেরেসকে পাঠান। কিন্তু ম্যাচ শেষের আট মিনিট আগে ব্যবধান দ্বিগুন করে বেনফিকাকে লড়াই থেকে ছিটকে দেয়। এবারের মৌসুমে বেনফিকার অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হুয়াও মারিও ডেনজেল ডামফ্রাইসের ক্রস হাতে লাগালে পেনাল্টি উপহার পায় ইন্টার। ৮২ মিনিটে গ্রীক গোলরক্ষক ওডিসিস ভøাকোডিমসকে পরাস্ত করে ব্যবধান বাড়ান লুকাকু। এর মাধ্যমে সাম্প্রতিক ফর্ম নিয়ে সমালোচনকদের কিছুটা হলেও জবাব দিয়েছেন লুকাকু। ইন্টার কোচ সিমোন ইনজাগি লুকাকুর বদলে জেকোকে মূল দলে খেলিয়েছেন। সম্প্রতি কয়েকটি ম্যাচে বেশ কিছু গোলের সুযোগ নষ্ট করায় লুকাকুর ওপর আস্থা রাখতে পারেননি ইনজাগি। কিন্তু কাল প্রচন্ড চাপের মধ্যেও তিনি সুযোগ হাতছাড়া করেননি। স্টপেজ টাইমে রামোসের একটি শট দুর্দান্ত দক্ষতায় রুখে দিয়ে ওনানা ব্যবধান কমাতে দেয়নি। এর আগে শেষ ষোলতে আরেক পর্তুগীজ দল পোর্তোকে পরাজিত করেছিল ইন্টার। সান সিরোতে আগামী ১৯ এপ্রিল দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে বেনফিকাকে আতিথ্য দিবে ইন্টার।

 

Please Share This Post in Your Social Media

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Site Customized By NewsTech.Com