1. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০১:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আজ পবিত্র আশুরা বঙ্গমাতার সমাধিতে আ. লীগের শ্রদ্ধা প্রধান রাজনৈতিক ইস্যুতে বঙ্গমাতার সিদ্ধান্ত স্বাধীনতা অর্জনে সহায়তা করেছে: প্রধানমন্ত্রী শোকাবহ আগস্ট উপলক্ষে জিয়ারখী ইউনিয়নে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব এর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহ্ফিল কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর ৯২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে র‌্যালি ও দোয়া মাহফিল দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে ডুবে এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু দৌলতপুরে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব এঁর জন্মবার্ষিকী পালন দৌলতপুরে বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের আয়োজনে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব এঁর জন্মদিবস পালন কুষ্টিয়ায় এন টিভির স্টাফ করেসপন্ডেট প্রয়াত সাংবাদিক ফারুক আহমেদ পিনু’র পঞ্চম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডকে সতর্ক করলেন শামি

  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ৩১ মে, ২০২১
  • ১৩৪ মোট ভিউ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল খেলতে ইংল্যান্ডে উড়ে যাওয়ার আগে দুই প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডকে সতর্ক করে দিলেন ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ শামি। তার দাবি, সেরা পেস বোলিং লাইনআপ নিয়ে ইংল্যান্ডে যাচ্ছে ভারত। তাই বিদেশি দল নিজেদের ঘরের মাঠে উইকেট তৈরি করার আগে অন্তত দুই বার ভাবনা চিন্তা করছে। এই দুর্দান্ত পেস আক্রমণের কারণেই বিরাট কোহলির দল এখন বিদেশেও ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলে। তবে শামি শুধু একা নন, প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের ঘুম কেড়ে নেওয়ার জন্য তার সঙ্গে আসন্ন সফরে আছেন ইশান্ত শর্মা, যশপ্রীত বুমরা, উমেশ যাদব, মোহাম্মদ সিরাজ ও শার্দূল ঠাকুর। তাই দুই প্রতিপক্ষকে হুংকার দিয়ে শামি বলছেন, ‘আমাদের পেস বিভাগের সবচেয়ে ভালো দিক হলো, আমরা সবাই একটানা ১৪০ থেকে ১৪৫ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করতে পারি। সঙ্গে থাকে বিষাক্ত সুইং। কোনও দলে এক কিংবা দুজন খুব পেস বোলিং করলে প্রতিপক্ষের সমস্যা হয় না। কিন্তু আমাদের দলে সবাই পেস লাইন-লেংথ বজায় রেখে সবাই দ্রুত গতিতে বোলিং করে। ফলে আমাদের মোকাবিলা করা বেশ কঠিন।’ ইশান্ত, শামি, বুমরাদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আগামী দিনের জন্য নবদীপ সাইনি, প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ, দীপক চাহার, শার্দূলের মতো বোলাররা উঠে এসেছেন। শামির দাবি এটাই ভারতের সেরা পেস বোলিং লাইনআপ। তার ভাষায়, ‘কাউকে খাটো করছি না। অতীতে কিন্তু ভারতীয় দল এক কিংবা দুজন পেস বোলারের উপর নির্ভর করত। তবে এখন সেই ধারা আর নেই। আমাদের এই দলে একাধিক ম্যাচ জেতানো বোলার আছে। তাই বিদেশ সফরে গেলে প্রতিপক্ষ দল উইকেটে ঘাস রাখার আগে অন্তত দুই বার ভাবনা চিন্তা করে।’ ভারতীয় দলে এখন তরুণ বোলারদের কীভাবে আগলে রাখা হয় তা জানিয়ে শামি বলেন, ‘আমাদের ড্রেসিংরুমে সিনিয়র-জুনিয়র বলে কোনো ভেদাভেদ নেই। সবাই নিজের মতামত দিতে পারে। কারণ আমাদের আসল লক্ষ্য হল দেশের জয়। তাছাড়া আরও একটা বিষয়ের দিকে আমরা নজর দিয়ে থাকি। সিনিয়র হিসেবে দলের জয়ে অবদান রাখা ছাড়াও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য কী উদাহরণ তৈরি করছি সেটাও কিন্তু বড় ব্যাপার। দেশের ক্রিকেটকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সেই কাজটাই করছি।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Theme Customized By Uttoron Host
You cannot copy content of this page