1. admin@andolonerbazar.com : : admin admin
  2. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :

নির্ধারিত সময়েই তদন্ত শেষ করার আশ্বাস বাফুফের

  • সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ১৪ মে, ২০২৩

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগকে দুই বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ফিফা। সোহাগ ছাড়াও বাফুফের আরও তিন কর্মকর্তার নাম ছিল ফিফার সন্দেহের তালিকায়। তাদের ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে বাফুফে সহ-সভাপতি কাজী নাবিলের অধীনে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি কার্যক্রমও শুরু করেছে।  আজ (১৪ মে) বাফুফে ভবনে তদন্ত কমিটির তৃতীয় বৈঠক আয়োজিত হয়েছে। আজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তদন্তের রিপোর্ট দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন কাজী নাবিল।  তদন্ত কমিটির প্রথম বৈঠকের পর ত্রিশ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট প্রদান করার কথা রয়েছে। সেই হিসেবে আগামী মাসের মাঝামাঝিতে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট দেয়ার কথা। হাতে সময় থাকার কারণে ধীরে ধীরে সব খতিয়ে দেখার কথা জানিয়েছেন কাজী নাবিল।  তিনি বলেন, ‘আমাদের চলমান কাজ অগ্রসর হচ্ছে। ফিফা কর্তৃক আনীত অভিযোগগুলোর অধিকতর তদন্তের কাজ করছি। আজকে আমরা কয়েকটি অভিযোগ এবং সেই সক্রান্ত কাগজ পরীক্ষা করেছি। সেই সক্রান্ত আমাদের যে স্টাফরা আছেন তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। আমাদের স্বাভাবিক কার্যক্রম আমরা এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। যেহেতু আমাদের হাতে সময় আছে আমরা ধীরে ধীরে প্রতিটা জিনিসই পরীক্ষা করে দেখছি। ’ আজ বাফুফের চার কর্মকর্তাকে জিজ্ঞেসাবাদ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নাবিল। তিনি বলেন, ‘আজকে আমরা চারজনের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা সবাই ম্যানেজমেন্ট  লেভেলে রয়েছেন। প্রয়োজনের তাগিদে আরও অন্যদের সঙ্গেও কথা বলতে হতে পারে। আমরা বিভিন্ন কাগজ পরীক্ষা করে দেখছি। সেখানে প্রয়োজন হলে অন্যদের সঙ্গেও কথা বলা হবে। ’ তদন্ত কমিটি এখন পর্যন্ত কোনও সমস্যা খুঁজে পেয়েছে কি না? প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘ফাইন্ডিংস এখনই বলা যাবে না। আমাদের তদন্ত  প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এটা নিয়ে এখনই কিছু বলা যাবে না। ’ নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তদন্ত কমিটির রিপোর্ট দেওয়ার কথা জানিয়ে নাবিল বলেন, ‘আশা করছি নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আমরা তদন্ত রিপোর্ট দিতে পারবো। ত্রিশ কার্যদিবস হিসেব করলে জুনের মাঝামাঝি সময়ে তদন্ত শেষ হওয়ার কথা। আশা করছি সেই সময়ের মধ্যেই আমরা রিপোর্ট দিতে পারবো। দুই-চার দিন এদিক ওদিক হতে পারে। ’ ফিফা বাফুফের কেনাকাটা সক্রান্ত বিষয় নিয়ে অভিযোগ তুলেছে। সেখানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নাম উঠে এসেছে। সেই সকল প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলবেন কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে নাবিল জানান, প্রয়োজনে তাদের সঙ্গেও কথা বলা হবে। তিনি বলেন, ‘সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি। মূলত আমরা এখন আমাদের ভেতরে যে বিষয়গুলো আছে সেগুলো খতিয়ে দেখছি। এটার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বাইরের যা ইনফরমেশন আছে সেগুলো আমরা পরে খতিয়ে দেখবো। ’

Please Share This Post in Your Social Media

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Site Customized By NewsTech.Com