1. admin@andolonerbazar.com : : admin admin
  2. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :

বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ; দৌলতপুরে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে নিয়োগ পাচ্ছেন বিএনপি-জামাত কর্মীরা : ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও অভিভাবকগণ

  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ৬ মে, ২০২৩

 

 

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে আবারও নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। প্রার্থী প্রতি মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি-জামাত কর্মীদের। এতে চরমভাবে ক্ষুব্ধ এলকাবাসী ও অভিভাবকগণ। নিয়োগ বাণিজ্যের ঘটনায় মো. বাবুল আক্তার মিঠু ও মো. ইসরাফিল হোসেন যৌথভাবে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও দৌলতপুর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

তাদের অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের বিএনপি সমর্থিত প্রধান শিক্ষক মো. আজিজুল হক স্থানীয় বিএনপি কর্মীদের নিয়োগ দেওয়ার শর্তে আবারও কম্পিউটার ল্যাব অপারেটর, অফিস সহায়ক ও পরিচ্ছন্নতাকর্মী ৩টি পদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন। মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে এসব পদে নিয়োগের জন্য চুড়ান্ত করা হয়েছে আড়িয়া এলাকার বিএনপি কর্মী মো. জামাত আলী মন্ডলের ছেলে মো. সুমন আল মামুন ও ওমরপুর এলাকার মো. বজলুর রহমানের ছেলে ফয়সাল আহমেদসহ নিকট আত্মীয় ৩জনকে। বিষয়টি জানাজানি হলে এরআগের গোপন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাতিলের দাবী জানিয়ে বড়গাংদিয়া এলাকার মো. জাহাঙ্গীর আলম নামে একজন সচেতন নাগরিক নিয়োগ ও বিজ্ঞপ্তি বাতিলের দাবী জানিয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও দৌলতপুর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ  দেন। একইসাথে তিনি বর্তমান উন্নয়নের সরকারের বাইরে ভিন্ন মতাদর্শে বিশ্বাসী স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি-জামাত নেতা, কর্মী ও ক্যাডারদের নিয়োগ না দেওয়ার দাবী জানান। এনিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে গোপন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাতিল করা হয়। পরবর্তীতে গত ১৩ এপ্রিল আবারও একই পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেন প্রধান শিক্ষক। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর গত ১৭ এপ্রিল সরকারী নীতিমালা ২০২১ বিধি না মেনে স্থানীয়ভাবে মাইকিং করা হয় যা নিয়োগ নীতিমালা পরিপন্থি। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে সন্দেহ আরো ঘনিভূত হয়। তাদের ধারণা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি তাদের পছন্দের ও নিকট আত্মীয় বিএনপি জামাত কর্মী ও সমর্থদের নিয়োগ দেওয়ার জন্য এ ধরণের অপকৌশল অবলম্বন করেছেন। তাই বিদ্যালয়ের বর্তমান কমিটির সময়কালে ও প্রধান শিক্ষকের তত্বাবধানে নিয়োগ না দেওয়র জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন অভিযোগকারীরা। নিয়োগের বিষয়ে জানতে বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুল হকের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি মোবাইল ফোন রিসিভ করেননি।   স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি-জামাত চক্রদের নিয়োগের বিষয়ে বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির বিদ্যুৎসাহী সদস্য সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আল মামুন বলেন, বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিএনপি ঘরনার হওয়ায় তার মনোনিত লোকজনকে নিয়োগ দেওয়ার জন্য প্রথমে গোপনে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়। সে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাতিল হলে আবারও নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এলাকায় মাইকিং করেছে যা নিয়োগ নীতিমালা বিরোধী। এতেই প্রমান হচ্ছে তারা স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় না গিয়ে অর্থের বিনিময়ে নিজেদের পছন্দের লোকদের নিয়োগ দিবে। অবৈধভাবে অর্থের বিনিময়ে বর্তমান সরকার বিরোধী বিএনপি-জামাত কর্মী সমর্থকদের নিয়োগ দেওয়া হলে বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়াতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেন। একই মন্তব্য অভিযোগকারী ও এলাকাবাসীরও। দৌলতপুর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সরদার মো. আবু সালেক এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়ার কথা জানিয়ে বলেন, বড়গাংদিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের নিয়োগ বোর্ড এখনও চুড়ান্ত হয়নি। এখানে কোন অবৈধ ও অনিয়মতান্ত্রিক নিয়োগের সুযোগ নেই।

 

Please Share This Post in Your Social Media

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Site Customized By NewsTech.Com