1. admin@andolonerbazar.com : : admin admin
  2. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :
শিরোনাম :

মিরপুরে প্রতিবেশীর সঙ্গে স্ত্রীকে শারীরিক সম্পর্কে বাধ্য করায় স্বামী খুন

  • সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

 

মিরপুর প্রতিনিধি ॥ টাকার জন্য প্রতিবেশী ভাতিজার সঙ্গে স্ত্রীকে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করতেন কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার রবিউল ইসলাম (৫০)। প্রায় ২০ বছর প্রতিবেশী ভাতিজা শিপনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে বাধ্য হন তিন সন্তানের জননী রিনি খাতুন (৪১)। এতে রাগে-ক্ষোভে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ঘুমন্ত স্বামীকে লোহার শাবল দিয়ে মাথায় পরপর চারটি আঘাত করে হত্যা করেন রিনি। মিরপুর থানায় দায়ের করা এ মামলার তদন্তভার গ্রহণের ১০ দিনের মধ্যেই হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করেছে কুষ্টিয়া পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার কুমারগাড়া এলাকা থেকে রিনি খাতুনকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার করেন রিনি খাতুন। আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার শহীদ আবু সরোয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গ্রেপ্তার রিনি খাতুন মিরপুর উপজেলার বহলবাড়িয় ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের নওদা খাদিমপুর গ্রামের গাংপাড়া এলাকার নিহতে রবিউল ইসলামের স্ত্রী। জানা গেছে, চলতি বছরের ১৯ জুন দিবাগত রাত দেড়টার দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে রবিউলকে ঘুমন্ত অবস্থায় মাথায় শাবল দিয়ে আঘাত করে গুরুতর আহত করা হয়। এ সময় স্ত্রী চিৎকার শুরু করেন। তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। প্রতিবেশীদের তিনি জানান, একজন মুখোশধারী রবিউলের ওপর হামলা করেছে। ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার মাথায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে গেছে। প্রতিবেশীরা গুরুতর আহত অবস্থায় রবিউলকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।  উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পথে ২০ জুন সকাল সাড়ে ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়।  এ ঘটনায় রবিউলের ভাই ইসমাইল হোসেন বাদী হয়ে শিপনকে আসামি করে মিরপুর থানায় এজাহার দায়ের করেন। এজাহারে উল্লেখ করা হয়, রিনিকে অনৈতিক প্রস্তাব দেওয়া ও তার সঙ্গে যোগাযোগ রাখার জন্য রবিউলের সঙ্গে শিপনের বিরোধ ছিল। বিরোধের জেরে রবিউলকে হত্যা করেন শিপন। মিরপুর থানার এই মামলাটি পিবিআইয়ে হস্তান্তর করা হয়। অতিরিক্ত আইজিপি বনজ কুমার মজুমদারের নির্দেশনা মোতাবেক পিবিআই কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার মো. শহীদ আবু সরোয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মো. মনিরুজ্জামান তদন্তভার গ্রহণের ১০ দিনের মধ্যেই মূল রহস্য উদ্ঘাটন করেছেন। অভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে আসামি রিনি খাতুনকে গ্রেপ্তার করেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বামীর হত্যাকাে র সঙ্গে সম্পৃক্ততার বিষয়টি স্বীকার করেন তিনি। বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) হত্যাকাে  ব্যবহৃত ৪০ ইঞ্চি লম্বা লোহার শাবল সাক্ষীর উপস্থিতিতে ঝোপের ভেতর হতে পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেওয়ার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে রিনি খাতুন জানান, তার স্বামী রবিউল স্থানীয় একাধিক এনজিও থেকে পাঁচ লাখ টাকা ঋণ নেন। কিন্তু নিয়মিত কিস্তির টাকা জোগাড় করতে না পেরে রবিউল টাকা সংগ্রহের স্ত্রী রিনি খাতুনকে টাকার বিনিময়ে প্রতিবেশী ভাতিজা শিপনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করেন। দীর্ঘ ২০ বছর এভাবে চলার পর তিন বছর আগে রিনি খাতুনের একটি জটিল অপারেশন হয়। অপারেশনের পর থেকে রিনি খাতুন শিপনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে অস্বীকার করেন। কিন্তু রবিউল তার স্ত্রীর আপত্তি অগ্রাহ্য করে নিয়মিত শিপনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে বাধ্য করতে থাকেন। এতে করে স্বামী রবিউলের ওপর রিনির রাগ ও ক্ষোভ বাড়তে থাকে। ক্ষোভের বশবর্তী হয়ে রিনি ঘুমন্ত রবিউলকে শাবল দিয়ে মাথায় পরপর চারটি আঘাত করে হত্যা করেন। পিবিআই কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার শহীদ আবু সরোয়ার বলেন, কুষ্টিয়ার মিরপুরের রবিউল ইসলাম হত্যা মামলাটি পিবিআইকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। মামলাটি গ্রহণের ১০ দিনের মধ্যে রহস্য উদ্ঘাটন করা হয়েছে। প্রতিবেশী ভাতিজার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে বাধ?্য করায় স্বামীকে খুন করেন রিনি খাতুন। তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Site Customized By NewsTech.Com