1. admin@andolonerbazar.com : : admin admin
  2. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :

রমজানুল মোবারক : তারাবিহ স্বস্তির নামাজ

  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ২৭ মার্চ, ২০২৩

 

 

আ.ফ.ম নুরুল কাদের ॥ রমজানের প্রথামাংশ রহমত আমরা সেই সময় পার করার মুহুর্তে এই মাসের আমল গুলোর বিষয়ে একটুখানি ধারনা নেয়া উচিত। রাসূলে করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পরপর দু’দিন একাকী তারাবি নামাজ পড়েছেন। সাথে শরিক ছিলেন সাহাবায়ে কেরামও। তৃতীয় কিংবা চতুর্থ দিন হুজুর আর হুজরা থেকে বের হননি। প্রিয় উম্মতের ওপর এটি আবার ফরজ হয়ে যায় কি না সে আশঙ্কায়। নববি ও সিদ্দিকী যুগ পেরিয়ে ওমরি শাসনামলের সূচনাকাল নাগাদ তারাবির নামাজের এ রীতিই (একা একা নামাজ আদায় করা) বহাল থাকে যথারীতি। রমজানের কোনো এক রাতে উমর রা: মসজিদে নববিতে তাশরিফ নিয়ে যান এবং দেখতে পান যে, মসজিদের কোথাও একাকী নামাজ হচ্ছে। আবার  কোথাও ছোট ছোট জামাত হচ্ছে। তিনি চিন্তা করলেন, সব নামাজিকে এক ইমামের  পেছনে একত্র করা উচিত। তখন সাহাবিদের ইজমা বা ঐকমত্যের আলোকে জামাতবদ্ধভাবে ২০ রাকাত তারাবির আদেশ জারি করেন এবং উবায় ইবনে কা’ব রা:- কে ইমাম নিযুক্ত করেন। রমজানের আরেক রাতে বেরিয়ে দেখলেন, মুসল্লীরা সাহাবি উবায় ইবনে কা’ব রা:-এর ইমামতিতে জামাতবদ্ধভাবে তারাবি পড়ছে। ফলে তিনি দারুণ খুশি হলেন এবং আবেগাপ্লুত কণ্ঠে বললেন, ‘বাহ বড় চমৎকার এ কাজটি!’ হজরত উসমান রা:-এর যুগেও ২০ রাকাত তারাবি নামাজ পড়া হতো। আর তখন নামাজ এতই দীর্ঘ হতো যে, মুসল্লিরা ক্লান্ত হয়ে লাঠিতে ভর করতেন। সাহাবা, তাবেঈন, তাবয়ে তাবেঈনের স্বর্ণযুগ পেরিয়ে দেশে দেশে কালে কালে শীর্ষস্থানীয় বুজুর্গ ওলামায়ে কেরাম তারাবি আদায় করেছেন এ পদ্ধতিতেই- ধীরে-সুস্থে আর শান্ত শিষ্টে।

কালজয়ী মনীষী হাকিমুল উম্মত মাওলানা আশরাফ আলী থানবি রহ: রমজান কাটাতেন ভারতের থানা ভবনে। তারাবির নামাজের ইমামতি করতেন তিনি নিজেই। ১৫ রমজান নাগাদ সোয়া পারা, এরপর থেকে এক পারা করে পড়তেন প্রতিদিন। ফরজ নামাজে যেমন ধীরে ধীরে কেরাত পড়তেন তারাবিতেও তা বজায় থাকত যথারীতি। কখনো কখনো দ্রুত পড়ার প্রয়োজন দেখা দিলেও ধীরে সুস্থে পড়ার সময় শব্দ উচ্চারণের যে মান ছিল তাই বিদ্যমান থাকত।

দ্রুত তারাবিতে ক্ষতিগুলো হলো ১. তারাবি অতি দ্রুত পড়লে কুরআনের অক্ষর ও শব্দের বিকৃতি ঘটে। ফলে নামাজ ফাসেদ হয়ে যায়। ২. তেলাওয়াতের রূহ বা প্রাণশক্তি বিনষ্ট হয়ে যায়। দ্রুতগতির মহাভুল থেকে বেরিয়ে ধীরগতির নামাজে মনোযোগী হই। অল্প পড়ি তবুও বিশুদ্ধ তেলাওয়াতে পড়ি। আল্লাহপাক তারাবিহ নামাজের যাবতীয় কল্যাণ আমাদের মাঝে দান করুন- আমিন।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Site Customized By NewsTech.Com