1. admin@andolonerbazar.com : : admin admin
  2. andolonerbazar@gmail.com : AndolonerBazar :

স্বাস্থ্য সেবার নামে মেডিল্যাব ডায়াগনষ্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টারের প্রতারণা

  • সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৮ মে, ২০২৩

 

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া শহরের কোর্ট পাড়ায় স্কুল অব লরিয়েটস গলিতে মেডিল্যাব ডায়াগনষ্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার নামক স্বাস্থ্য সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। রাইরে থেকে দেখতে চাকচিক্যময় মনে হলেও প্রতিষ্ঠানটি ভিতরে চলছে রোগীদের সাথে নানা প্রতারনা। স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো রোগীর রোগ নির্নয় পরীক্ষা। কারণ রোগ নির্নয় পরীক্ষার ফলাফল দেখেই ডাক্তার রোগের চিকিৎসা দিয়ে থাকেন। যদি রোগ নির্নয় পরীক্ষা ফলাফল কোনভাবে ভূল দেওয়া হয়, তাহলে ডাক্তার রোগের ভূল চিকিসা প্রদান করবে সেটাই স্বাভাবিক। প্রতিটি রোগ নির্নয় পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার ফলাফল পরীক্ষণের জন্য সরকারী বা সরকার স্বীকৃত কোন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত সার্টিফিকেটধারী মেডিকেল টেকনোলজিস্ট নিয়োগ দেওয়া বাধ্যতামূলক হলেও  মেডিল্যাব ডায়াগনষ্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার সরকারের সেই নিয়মনীতিকে বৃদ্ধঙ্গুল দেখিয়ে কোন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট দেয় নাই। যার ফলে রোগীদের স্বাস্থ্য সেবার ক্ষেত্রে হিতে বিপরীত ঘটতে পারে। যে কোন সময়ে ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। মেডিল্যাব ডায়াগনষ্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টারের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট হিসাবে কর্মরত আছেন নিলুফার ইয়াসমিন রিতু। প্রতিষ্ঠানের প্যাড লিখিত তথ্যে উল্লেখ করা হয়েছে নিলুফার ইয়াসমিন রিতু (ডিএমটি) ল্যাবরেটরি, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ল্যাব), বিএসসি অনার্স ইন পাবলিক হেলথ নিট্রিশন। তবে নিলুফার ইয়াসমিন রিতু’র সনদ দেখতে চাইলে দেখাতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।  মেডিল্যাব ডায়াগনষ্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টারে ঢুকতেই প্রবেশ পথের বামপাশে দেখা যায় ডাঃ শারমিন সুলতানা’র সাইনবোর্ড। সাইনবোর্ডের তথ্য মতে ডাঃ শারমিন সুলতানা প্রতিদিনই রোগী দেখেন মেডিল্যাব ডায়াগনষ্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টারে। যদিও সাইনবোর্ডে সময় উল্লেখ নেই, তিনি ঠিক কয়টা থেকে কয়টা পর্যন্ত রোগী দেখেন।  নিলুফার ইয়াসমিন রিতু’র বিষয়ে জানতে চাইলে ডাঃ শারমিন সুলতানা বলেন, দীর্ঘ দিন প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ ছিলো। কয়েক দিন আগে পুনরায় চালু করা হয়েছে এবং রিতু সেখানে বেশী দিন কাজ করেন না বলেও জানান তিনি। চাকুরী দেওয়ার আগে রিতু’র প্রাতিষ্ঠানিক সনদ জমা নিয়েছেন কিনা এবং সেগুলো সঠিক আছে কিনা মর্মে জানতে চাইলে ডাঃ শারমিন সুলতানা তার কোন সদুত্তোর দিতে পারেননি। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, নিলুফা ইয়াসমিন রিতু কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের ছেউড়িয়ার বাসিন্দা। তিনি বর্তমানে কুষ্টিয়া সিঙ্গার মোড়ে অবস্থিত আইডিয়াল ভিশন  ইনস্টিটিউটের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (প্যাথলজি) বিভাগের ফাইনাল ইয়ারের ছাত্রী। এই বিষয়ে সিভিল সার্জন ডাঃ এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো খবর
© All rights reserved ©2021  Daily Andoloner Bazar
Site Customized By NewsTech.Com